76:1 নিশ্চয় মানুষের উপর এক সময় এমনও অতিবাহিত হয়েছে যে,     কোথাও   তার   নাম   পর্যন্ত  ছিলো না।

76:2     নিশ্চয়    আমি    মানুষকে  সৃষ্টি করেছি মিশ্রিত   বীর্য   থেকে (এজন্য)       যে,       আমি       তাকে  পরীক্ষা করবো   অতঃপর  তাকে শ্রবণকারী,         দর্শনকারী       করে দিয়েছি।

76:3   নিশ্চয়   আমি  তাকে   পথ বাতলিয়ে    দিয়েছি     হয়তো   সে কৃতজ্ঞ হবে, অথবা অকৃতজ্ঞ।

76:4  নিশ্চয়  আমি কাফিরদের  জন্য    প্রস্তুত        করে রেখেছি  শৃঙ্খলসমূহ,  বেড়ী    এবং  জ্বলন্ত আগুন।

76:5       নিশ্চয়      সৎকর্মপরায়ণ  লোকেরা   পান  করবে ওই  পাত্র থেকে, যার মিশ্রণ হচ্ছে কাফুর। (ওই কাফুর কি?)

76:6   একটা   ঝর্ণা,   যা    থেকে  আল্লাহ্‌র  অত্যন্ত  খাস  বান্দাগণ  পান       করবে       আপন       আপন  প্রাসাদসমূহে,  সেটাকে  যেখানে  ইচ্ছা প্রবাহিত করে নিয়ে যাবে।

76:7  তারা  আপন  মান্নতসমূহ  পূর্ণ করে  এবং  ওই দিনকে ভয়  করে,        যে        দিনের        অমঙ্গল  সর্বব্যাপী।

76:8  এবং  আহার   করায় তার ভালোবাসার     উপর     মিসকীন,  এতিম ও বন্দীকে।

76:9 তাদেরকে বলে,   ‘আমরা  একমাত্র      আল্লাহ্‌রই    (সন্তুষ্টির) জন্য        তোমাদেরকে         আহার্য  প্রদান করছি, তোমাদের  নিকট  থেকে     কোন     বিনিময়     কিংবা  কৃতজ্ঞতা চাই না’।

76:10  নিশ্চয় আমাদের আপন রবের   নিকট   থেকে     এমন  একদিনের ভয়   রয়েছে যা অতি মাত্রায়         ভীতিপদ,    অত্যন্ত কঠোর।

76:11         সুতরাং         তাদেরকে  আল্লাহ্‌ ওই দিনের অনিষ্ট থেকে রক্ষা  করেছেন  এবং  তাদেরকে  সজীবতা        ও        আনন্দ        দান  করেছেন।

76:12     এবং    তাদের     ধৈর্যের উপর       তাদেরকে      জান্নাত     ও রেশমী    পোশাক      পুরস্কাররূপে দান করেছেন;

76:13              জান্নাতের            মধ্যে আসনগুলোর উপর হেলান দিয়ে উপবিষ্ট থাকবে- তাতে না রোদ দেখবে, না অতি শীত।

76:14 এবং  সেটার  ছায়াগুলো তাদের  উপর   সন্নিহিত    থাকবে এবং  সেটার  গুচ্ছগুলো  ঝুলিয়ে  নিচে এনে দেওয়া হবে।

76:15     এবং     তাদের    সম্মুখে রূপার পাত্রসমূহ ও পান-পাত্রাদি (পরিবেশনের      জন্য)   ঘুরানো ফেরানো             হবে,    যেগুলো  স্ফটিকের ন্যায় পরিস্কার হবে।

76:16            কেমন            স্ফটিক?  রূপারই।   সাক্বীগণ   সেগুলোকে পূর্ণ        পরিমাণে          ভর্তি        করে রেখেছে- এমন হবে।

76:17  এবং   তাতে     ওই  পাত্র থেকে    পান  করানো  হবে,  যার মিশ্রণ হবে আদা।

76:18         ওই          আদা          কি? জান্নাতের   একটা    ঝর্ণা,     যাকে ‘সালসাবীল’ বলা হয়।

76:19   এবং   তাদের  চতুর্পাশে সেবার  নিমিত্ত   প্রদক্ষিণ    করবে চির      কিশোররা;      যখন      তুমি  তাদেরকে            দেখবে             তখন  তাদেরকে  মনে   করবে    বিক্ষিপ্ত মুক্তারাজি।

76:20        এবং        যখন          তুমি  এদিক-সেদিক    তাকাবে    তখন  এক মহা শান্তি দেখবে এবং মহা বাদশাহী।

76:21    তাদের    গায়ে    রয়েছে  পাতলা রেশমের সবুজ বস্ত্র এবং মোটা রেশমের। আর তাদেরকে রূপার কঙ্কণ পরানো হবে; এবং তাদেরকে    তাদের    রব    পবিত্র  পানীয় পান করাবেন।

76:22   তাদেরকে     বলা    হবে, ‘এটা  হচ্ছে  তোমাদের  পুরস্কার  এবং            তোমাদের            পরিশ্রম  যথাস্থানে পৌঁছেছে।

76:23   নিশ্চয়   আমি   আপনার  প্রতি           ক্বোরআন           ক্রমান্বয়ে  অবতীর্ণ করেছি।

76:24    সুতরাং     আপন   রবের নির্দেশের উপর ধৈর্যশীল থাকুন; এবং তাদের  মধ্যে  কোন  পাপী অথবা    অকৃতজ্ঞের   কথা    শ্রবণ করবেন না।

76:25 এবং আপন রবের নাম   সকাল ও সন্ধ্যায় স্মরণ করুন!

76:26 এবং রাতের কিছু অংশে তাকে সাজদা করুন;  আর  দীর্ঘ রাত পর্যন্ত তার পবিত্রতা ঘোষনা করুন।

76:27     নিশ্চয়     এসব        লোক পদতলের পৃথিবীকে ভালোবাসে এবং   নিজেদের   পেছনের   এক  ভারী     (কঠিন)     দিনকে     বর্জন  করে বসেছে।

76:28    আমি   তাদেরকে    সৃষ্টি  করেছি এবং তাদের সন্ধিস্থলকে মজবুত    করেছি।    এবং     আমি   যখনই       চাই       তাদের       মতো  অন্যান্যদেরকে  তাদের  স্থলাভিষিক্ত করতে পারি।

76:29        নিশ্চয়       এটা        হচ্ছে উপদেশ। সুতরাং যার ইচ্ছা হয় যে যেন আপন রবের দিকে রাস্তা ধরে।

76:30  এবং তোমরা কি চাও? কিন্তু তাই  হয় যা আল্লাহ্‌  চান।   নিশ্চয় তিনি জ্ঞান ও প্রজ্ঞাময়;

76:31   আপন    করুণার    মধ্যে শামিল   করে   নেন   যাকে   চাdন;  এবং     যালিমদের     জন্য     তিনি  বেদনাদায়ক   শাস্তি   তৈরি  করে  রেখেছেন।
(সম্পূর্ণ)